কবি ঃ অনিমেষ

নরম আলোয় পুড়েছিল

নিকষ কাল অন্ধকারে
জেগেছিল একটা আলো,
চন্দ্রমার প্রতিবিম্ব জ্বেলেছিল
একখণ্ড গোল আলোর চাকা,
জ্বেলেছিল পুষ্করিনীর জলে,
সেই প্রথম পক্ষ চন্দ্রনিশীতে
জ্বেলেছিল চাঁদ একখণ্ড আলো
পুষ্করিনীর জলে।

যদিও সমাজের অন্ধকার গলি দিয়ে
নীচে অনেকটাই অন্ধকার গহীনে
যেন সহস্র গিরিখাদের নীচে
যেতে যেতে আর নামতে নামতে
এক দারুন পুষ্করিনী আছে-
বহুপ্রবীণ বুক উঁচু তার পাড় বরাবর,
সেই জলেতেই সেই চাঁদের প্রতিবিম্বে
সেই প্রথম পক্ষ নিশীতে
পোড়ামুখ আমার চেয়েছিল
চেয়ে চেয়ে দেখেছিল তারে
সেই জলে সেই আলো
আমায় জাগিয়েছিল
আমায় পুড়িয়েও ছিল;
সমস্ত নক্ষত্র জেগে অথবা ঘুমিয়ে
আলতো ক’রে ছুঁয়েছিল যেই চাঁদ
সেই আলো ছুঁয়েছিল বুঝি পুষ্করিনীর জল;
জল থেকে সেই চন্দ্রমা
ছুঁয়েছিল আমায় অবলীলায়-
জাগিয়েছিল সে
আবার পুড়িয়েও ছিল।
এটাই সত্য।
গভীর অন্ধকার-মাঝেই ছিল সে পুষ্করিনী
পুষ্করিনীভরা আলোর অবগাহন ছিল;
আবছা আলোর প্রায়ান্ধ গলিতেও
একাই ছিল সে।

ঢাকা/ ১৭ অক্টোবর, ২০১৫।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You may use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>