কবি ঃ সোহাগ,

১. নির্জন দুপুরে ঘাসের সুখ

বাতাস নিয়েছিল যে সমস্ত ঘ্রাণ
ঘাসের সমস্ত শরীর জুড়ে,
যে সমস্ত অনুরণন সৃষ্টি হয়েছিল
ঘাসের সাথে বাতাসের কম্পনে
বাতাসের স্তরে স্তরে
তাতে স্পষ্ট থেকে স্পষ্টতর হয়,
-নির্জন দুপুরে সেই সহবাস হয়নি তাহার
যা হয়েছিল
তার ঘাসিনীর সাথে
নির্জন দুপুর নিশীথে-
গভীর প্রশান্তির সংগীত
অমৃত প্রলয় করে,
অনুরণন শালীন হয়ে আসে,
ঘ্রাণ রূপ নেয় সুখময় ক্লান্তির
এই নির্জন দুপুরে।
অল্প আলোর বারান্দায় অথবা মাঠে
হে সবুজ তৃণ!
অদ্ভুত সুখী তুমি।

২. নির্জন দুপুরে ঘাসের সাথে

‘বাহ! বড় অবাক তোমার
হে তৃণ,
এখনই ছেঁড়াচটির আঘাতেই
দলিত হবে তুমি
এই সুখ তোমার!’
ব’লেই কান পেতে শুনি
নাসিকায় পূর্ণ করি ঘ্রাণ
ঘাসের গা থেকে
ধেই ধেই করে নেচে ওঠা
বাতাসের সুর বলে
তবু তুমি সুখী?
না!
অবাক হই না আর-
দেখে ঘাসের রূপ বহুবার
বহু বহুবার।
দেখেছি সুখের লহরী
মূর্ছনা গেয়েছে সুখাবেশের সংগীত
দলিত ঘাসের সুখে
অবাক হই না আর।
কেননা-
প্রতিমুহূর্তে দলিত হয়
দলিত হতেই হয়-
ওই ছেঁড়া চটিঅলার
কৃষকের শ্রমিকের
সাধারণের মানুষের-
যে দলছে তোমায়।
ব্যক্তিগত বা সমষ্ঠিগত
সহশ্রেণির বা শত্রুর
শুধু দলন
আর দলন।

৩. নির্জন দুপুরে বিপন্ন ঘাস

আমি জনগণ সাধারণ
বাংলাদেশ ভূ-খণ্ড যার।
দলিত হই অহরহ
যখন ঘুষ না দিয়েই কিনতে যাই
বাবুদের অফিসপাড়ার ট্রান্সফারের খবর
তখন ব্যক্তিগত দলন।
যখন বৈদেশী কুটনীতিকদের সাথে
রুদ্ধদ্বার বৈঠকে চুক্তিপত্রে চলে সই-সাবুদ
ফারাক্কা তিস্তা বা ছিটমহলের ভূগোল নিয়ে-
তখন জাতীয় দলন।
যখন শিশু রাজন হয়ে যায়
নৃশংস খুনের ছবিমাত্র
তখন সমষ্ঠিগত দলন।
যখন ঋণগ্রস্ত কৃষকের আত্মহত্যা
তখন জাতিগত দলন
যখন খোদা-ভগবান-ঈশ্বরের সংস্কৃতি হয় মরণাস্ত্র
তখন যুদ্ধ আর যুদ্ধ
তখনও আমি সাধারণ
দলিত দলিত- বৈশ্বিক দলন।
একটা নীরিহ ছাগল যেমন
ঘাসকে বিপন্ন করে চলে যায় অবলীলায়
অন্য কোন প্রতিবেশে বনমাতা সুন্দরবনেও
যেদিন থাকবেনা এই ঘাস আর
তখনও আমি দলিত
অস্তিত্বগত দলন।
অবনত মস্তিষ্কে চেয়ে দেখি
তবু সম্ভাষণ জানাই
হে ঘাস-
পরিবেশের উপাদান হয়ে থাক তবু তুমি
হে প্রিয় তৃণ আমার!

/নির্জন দুপুরে ঘাস// ১৯ অক্টোবর, ২০১৫/ ঢাকা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You may use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>